colorgeo.com

Disaster and Earth Science

পৃথিবীর ভয়ঙ্কর তিনটি আগ্নেয়গিরি volcano

volcano

ভূগর্ভস্থরের উত্তপ্ত ও গলিত পাথর.ছাই অথবা গ্যাস ভূপৃষ্ঠে বেরিয়ে আসাকে আগ্নেয়গিরি volcano বলে । বর্তমান পরিসংখ্যান অনুযায়ী পৃথিবীতে প্রায় অর্ধ সহস্র সক্রিয় বা জীবন্ত আগ্নেয়গিরি রয়েছে। আগ্নেয়গিরি volcano অনেক সময় মানুষের প্রাণনাশের কারণ হিসেবেও দেখা যায়।গত  বছরে আগ্নেয়গিরিতে মারা গিয়েছে প্রায় কয়েক হাজার লোক। আজ আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ঙ্কর তিনটি আগনিওগিরি সম্পর্কে জানব।

তামু ম্যাসিফ ( Tamu Massif ) : তামু ম্যাসিফ হলো পৃথিবীর জীবন্ত সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি। এই আগ্নেয়গিরির  volcano সন্ধান পাওয়া যায় আজ থেকে দুই দশক আগে জাপানে। যখন এটি আবিষ্কৃত হয় তখন কেউ বুঝতে পারেনি যে এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি। তবে পরবর্তীতে বিজ্ঞানীদের কয়েক বছরের গবেষণা এবং আগ্নেয়গিরি থেকে প্রাপ্ত তথ্য সংগ্রহ করার পর তারা সিদ্ধান্ত নেন যে, এটি হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি । এটি আকৃতির দিক দিয়েও বিশাল। আকৃতিগত দিক থেকে আগ্নেয়গিরিটি ব্রিটিশদ্বীপপুঞ্জ অথবা নিউ মেক্সিকোর চাইতেও বড় ।সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৬৫০০ ফুট নিচে অবস্থিত এই আগ্নেয়গিরি।এর আয়তন ৪০০ মাইল দীর্ঘ এবং ২.৫ মাইল উঁচু । তবে মজার বিষয় হলো, এই আগ্নেয়গিরিটি এখনো বিস্ফোরিত হয়নি। যদি কখনো বিস্ফোরিত হয় তবে, তার পরিণাম হবে ভয়াবহ । যা পৃথিবীবাসীদের জন্য দুঃখের কারণ হয়ে দাঁড়াবে । বিজ্ঞানীরা পৃথিবীর এই সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরি নিয়ে এখনো গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

বানুয়া উহু (  Banua Wuhu ) : এই আগ্নেয়গিরিটি পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম আগ্নেয়গিরি । এই আগ্নেয়গিরির অবস্থান ইন্দোনেশিয়ার  শাঙ্গী   দ্বীপের  সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৪০০০ মিটার উপরে । আপনি যদি এই আগ্নেয়গিরি   দেখতে যেতে চান তবে ,অবশ্যই আপনার একজন গাইড বা পথপ্রদর্শক লাগবে ।  কেননা আগ্নেয়গিরির অবস্থান সমুদ্রের তলদেশে।  যার জন্য আপনি সমুদ্রের বাইরে অথবা সমুদ্রের পাড়ে দাড়িয়ে কিছুই দেখতে পারবেন  না ।  জনশ্রুতি আছে আগ্নেয়গিরিটি বেশ কয়েকটি ক্ষণস্থায়ী  দ্বীপ সৃষ্টি করেছিল। তারমধ্যে ১৮৩৫ সালে ৯০ মিটার একটি দ্বীপ সৃষ্টি করেছিল কিন্তু সবগুলোই আবার   আগ্নেয়গিরির  ভয়ংকার লা্ভার কারণে ধ্বংস হয়ে যায়  । এটিকে পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ঙ্কর আগনিওগিরি হিসেবে বিবেচিত করা হয় ।  এই আগ্নেয়গিরি এতটাই ভয়ংকার যে অনেক ১৯৯০ সালে একটি দ্বীপকে পুরোটাই শিলাতে পরিণত করেছিল ।

Anak Krakatoa : পৃথিবীর ইতিহাসে বিস্ফোরিত সবচেয়ে বড় আগনিওগিরি আনাক l আনাক আগ্নেয়গিরির অবস্থান ইন্দোনেশিয়ায় ।আনাক আগ্নেয়গিরি থেকে সর্বপ্রথম ১৮৮৩ সালের আগস্ট মাসে অগ্নুৎপাত ঘটে  । এই অগ্নুৎপাতের  আওয়াজ এতটাই বিশাল ছিল যে, পুরো পৃথিবীর মানুষ শুনতে পেয়েছিল । পরবর্তীতে বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে জানতে পেরেছিল যে,এই  অগ্ন্যুৎপাতের তেজ ছিল প্রায় ২০০ মেগাটন বারুদ বিস্ফোরণের সমতুল্য । যা ১৯৪৫ সালে জাপানের হিরোশিমায় ফেলা  পারমাণবিক বোমার শক্তি তুলনায় ১৩০০০ গুণ বেশি  । এই আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণের ভয়াবহতা এতটাই ছিল যা পরবর্তীতে পৃথিবীর তাপমাত্রার প্রায় ১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে দিয়েছিল ।তবে এই আগ্নেয়গিরিতে কারো প্রাণনাশের খবর পাওয়া যায়নি। 

Please follow and like us:

%d bloggers like this: