colorgeo.com

Disaster and Earth Science

রাত জেগে কাজ করা ভাল না খারাপ

Is it good to work at night
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাত জাগা একটি খারাপ অভ্যাস অনেকেই বলে থাকে। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ একটা আপেক্ষিক ব্যাপার। রাত জাগা আপনার শরীরের জন্য কোন ক্ষতির কারণ হতে নাও পারে যদি আপনি আপনার শরীর কে সেভাবে খাপ খাইয়ে নিতে পারেন। আপনারা হয়তো দেখেছেন যে কোন দিন বিকালে ঘুমিয়ে রাত ৮টা বা ১০ টা পর্যন্ত ঘুমালে সেই রাতে আপনার আর ঘুম আসবে না। হয়ত শেষ রাতে ঘুম আসলেও আসতে পারে। তার মানে হল আপনার শরীরের ক্লান্তি দুর করার জন্য যে পর্যাপ্ত ঘুম আপনার শরীর ইতি মধ্যে পেয়ে গেছে। তাই আর কোন ঘুম ঘুম ভাব বা তন্দ্রাচ্ছন্ন ভাব আসবে না। এটা আপনার শরীরের জন্য কোন খারাপ নয়। এভাবে পর দিন দেখবেন আপনার অভ্যাস হয়ে গেছে যে আপনার সেই বিকালে আবার ঘুম আসবে আর সারা রাত জেগে থাকবেন। তাই আপনার ইচ্ছা মত আপনার শরীর কে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। অনেকে কথা বলে যে রাত জেগো না। এটা একটা আপেক্ষিক ব্যাপার। তবে যাদের খুব সকালে ঘুম থেকে উঠার অভ্যাস তাদের কে আমি কোন দোষ বা খারাপ কিছু দেখছি না। আমি বিশ্বাস করি খুব সকালে ঘুম থেকে উঠে পড়াশুনা করলে অল্প সময়ে বেশি পড়া শুনা করা যায় মাথা খুব তীক্ষ্ণ থাকে মনোযোগ দিয়ে পড়লে খুব ই ভাল সময়। মানে রাতে পর্যাপ্ত ঘুমানর পরে সকালে পড়াশুনা করা উত্তম।

আসল কথা হল আপনার শরীর এর জন্য পর্যাপ্ত ঘুম আপনি ঘুমিয়েছেন কিনা। একজন সুস্থ মানুষের জন্য প্রতিদিন ৬-৮ ঘণ্টা ঘুম দরকার। এটা মাথায় রাখবেন। আর পরিমিত ঘুম না হলে আপনি অসুস্থ হতে বাধ্য।

কেন রাত জাগা খারাপ নয়?

শুনুন যাদের অনেক গুলো ছেলেমেয়ে আছে বাসায় বা বউয়ের পান পানানি বা এটা করো ওটা করো সারা দিন তাদের জন্য দিনের কিছুটা সময় ঘুমিয়ে নিলে সারা রাত আপনি কাজ করতে পাবেন আপনার মনের মত করে। প্রতিটা মানুষের কিছু ফ্রি সময় দরকার আছে। তাই এটা একটা উত্তম কৌশল নিজের কাজ করার জন্য।

২। যারা অনলাইনে কাজ করেন বিদেশি বায়ার দের সাথে, তাদের রুটিন টাই রাত জাগা। আপনি রাতে কাজ না করলে নিজের ফ্রিলান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন না। এটা নিশ্চিত। তাই রাতে কাজ করুন। তবে দিনে ঘুমাবেন ।

৩। আপনি যদি ইউটুবার হয়ে থাকেন তবে রাতে ভিভিও তৈরি করা খুব ভাল কারণ রাতে কোন বাজে শব্দ থাকে না আপনার ভিডিওর সাউন্ড খুব ভাল হবে। তাই রাতে ভিডিও বানাবেন। তবে সারা রাত না জেগে রাত ৩ টা থেকে সকাল ১০ টা পর্যন্ত ঘুমাতে পারেন।

রাত জাগা নিয়ে অনেক কথা বললাম মোট কথা আপনি রাত ও দিনকে আলাদা আলাদা করে চিন্তা করার কিছু নাই। দিন রাত সব ই সমান। কাজের জন্য। কিছু কাজ দিনে করতে হয়। কিছু কাজ রাতে। আপনি যদি রাতের কাজ করতে চান তাহলে দিনে সে কাজ করতে পারবেন না। সব কিছু নির্ভর করছে আপনার পারিপার্শ্বিক অবস্থার উপর। আপনার পারিপার্শ্বিক ব্যাবস্থা যদি আপনাকে সহায়তা না করে কিভাবে কাজ করবেন। যেমন কাঁচা বাজার করতে গেলে রাতে হবে না কারণ সমস্ত দোকান পাঠ বন্ধ থাকে। আর রাতে বিদেশিদের সাথে কথা বলা যোগাযোগ করা উত্তম তারা যখন কাজ করে আপনাকে তাদের সাথে মিলে কাজ করতে হবে। মানে রাতে।

পৃথিবীতে একটা দেশ আছে ইউরোপ এ নাম নরওয়ে যেখানে মধ্য রাতে সূর্যের আলো থাকে। মানে রাতেও দিনের সূর্য মামা কে দেখা যায়। তাই কোন কাজ দিনে কোন কাজ রাতে এটা কোন ব্যাপার নয় আপনার কাজ করতে পারাটাই গুরুত্ব পূর্ণ। দিনে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিদিন ৮-১০ ঘণ্টা নিয়মিত কাজ করুন। আপনার সফলতা কেউ বাধা দিতে পারবে না।

স্টিভ জবস এর নাম শুনেছেন, যিনি বলেছেন। এমন ভাবে কাজ করো যাতে মনে হয় আজ ই তোমার জীবনের শেষ তম দিন। কাজের গুরুত্ব এতোটাই হওয়া উচিত। কোন কাজ শুরু করলে মন দিয়ে কাজ করুন যতক্ষণ না কাজ টি শেষ হয়। আর যেকোনো উদ্যোগে লেগে থাকুন। সফলতা আসবেই। সফলতার জন্য অপেক্ষা করবেন না কাজ করুন নিষ্ঠার সাথে। কাজের ফল কখন বৃথা যায় না। ভাল যাকে ভাল ফল খারাপ কাজে খারাপ ফল। ওষুধ যেমন খেলে কিছু না কিছু কাজ হবেই তেমনি। কাজ করলেও কিছু না কিছু আসবেই।আপনার আজকের দিনের কাজ ই আগামি দিনের ভবিষ্যৎ।নিজেকে আগামী কাল কিভাবে দেখতে চান তা নির্ভর করছে আজকের কাজের উপর।

তাই যারা দিনে কাজের সময় পান না তারা রাত কে আপনার কাজের উত্তম সময় হিসাবে বেছে নিন।

Please follow and like us:

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
%d bloggers like this: